এই সিরিজ একা দেখলেই মজা পাবেন, বাবার বন্ধুর সাথে ঘনিষ্ঠ হলেন গৃহবধূ

এই সিরিজ একা দেখলেই মজা পাবেন, বাবার বন্ধুর সাথে ঘনিষ্ঠ হলেন গৃহবধূএই সিরিজ একা দেখলেই মজা পাবেন, বাবার বন্ধুর সাথে ঘনিষ্ঠ হলেন গৃহবধূএই সিরিজ একা দেখ
Please wait 0 seconds...
Scroll Down and click on Go to Link for destination
Congrats! Link is Generated
এই সিরিজ একা দেখলেই মজা পাবেন, বাবার বন্ধুর সাথে ঘনিষ্ঠ হলেন গৃহবধূ


এই সিরিজ একা দেখলেই মজা পাবেন, বাবার বন্ধুর সাথে ঘনিষ্ঠ হলেন গৃহবধূ


কয়েক মাস আগে কেন্দ্রীয় মন্ত্রক থেকে কয়েকটি ওটিটিকে তাদের কন্টেন্টের বিষয়ে সতর্ক করা হলেও সেই তালিকায় অদ্ভুত ভাবে ছিল না উল্লু। অথচ উল্লুর ইউএসপি হল প্রাপ্তবয়স্ক ওয়েব সিরিজ। এই ওয়েব সিরিজগুলি একসময় দর্শকদের চাহিদা হলেও বর্তমানে তা একঘেয়ে হয়ে উঠছে। গত 24 শে ডিসেম্বর ক্রিসমাসের প্রাক্কালে উল্লুর ইউটিউব চ্যানেলে লঞ্চ হয়েছে প্রাপ্তবয়স্ক ওয়েব সিরিজ ‘ম্যায় ইহাঁ তু উওহাঁ’-র অফিশিয়াল ট্রেলার। এখনও অবধি এই ট্রেলারের ভিউ অতিক্রম করেছে চল্লিশ হাজারের কিছু বেশি। এই ওয়েব সিরিজটি উল্লুতে স্ট্রিম হবে আগামী 29 শে ডিসেম্বর।


ট্রেলারের শুরুতে দেখা যায়, নিখুঁত ভাবে সাজানো হয়েছে নবদম্পতির ফুলশয্যার ঘর। বিছানার উপর লাল রঙের লেহেঙ্গা-চোলি পরে বসে রয়েছে নববধূ মহিমা। ঘোমটায় আবৃত তার মুখ। একসময় তার স্বামী ঘরে প্রবেশ করে। সে নববধূর মুখ থেকে ঘোমটার আবরণ সরিয়ে দেয়।


 মহিমার গা থেকে এক-এক করে সমস্ত গয়না খুলে নেয় সে। স্বপ্নের মতো কেটে যায় তাদের ফুলশয্যার রাত। বিয়ের পর মহিমা আসে নিজের বাড়িতে। 


তার মা বলে, মহিমার বাবার আচমকা মৃত্যুর পর তার একটাই চিন্তা ছিল, মেয়ের বিয়ে কি করে হবে! মহিমার বাবার বন্ধু বলে, বন্ধুর মেয়ে তারও মেয়ে। ওই ব্যক্তিই মহিমার বিয়ের ব্যবস্থা করেছিল। এই কারণে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সে।



হঠাৎই একদিন মহিমা রাস্তায় তার বান্ধবীকে এলোপাথাড়ি ঘুরতে দেখে। তার বান্ধবী পাগলের মতো হয়ে গিয়েছে। একসময় মহিমা তাকে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসে। 


কথায় কথায় সে জানতে পারে, ওই মেয়েটির স্বামী তাকে বেচে দিয়ে অন্য একজন মেয়েকে বিয়ে করেছে। কিন্তু মহিমার বান্ধবী কোনোমতে নিজেকে বাঁচিয়ে পালিয়ে এসেছে। মহিমার তার বান্ধবীকে নিজের বাড়িতে আশ্রয় দেয়। ইতিমধ্যেই করোনা অতিমারীর কারণে দেশ জুড়ে শুরু হয় লকডাউন। 


সেই সময় কিছুদিনের জন্য মহিমাকে নিজের মায়ের কাছে যেতে হয়েছিল। ফলে সে তার বান্ধবীকে স্বামীর দেখভালের জন্য রেখে যায়। লকডাউনের কারণে মহিমা বাড়ি ফিরতে পারে না। অপরদিকে তার বান্ধবীর সাথে মহিমার স্বামীর সম্পর্ক তৈরি হয়।


অপরদিকে মহিমার বাবার বন্ধুর সাথে অবৈধ সম্পর্ক তৈরি হয় তার প্রতিবেশী রেণুর। কিন্তু ওই ব্যক্তির কুনজর পড়ে মহিমার উপর। একদিন মহিমার বান্ধবী তার সাথে দেখা করতে আসে। সে মহিমার বাবার বন্ধুকে দেখে চমকে ওঠে। মহিমা জানতে পারে, ওই ব্যক্তিই তার বান্ধবীর জীবন নষ্ট করেছে। কি করে মহিমা মুক্তি পাবে ষড়যন্ত্রের হাত থেকে?

Post a Comment

আমাদের সাথে থাকুন
Cookie Consent
We serve cookies on this site to analyze traffic, remember your preferences, and optimize your experience.
Oops!
It seems there is something wrong with your internet connection. Please connect to the internet and start browsing again.
Site is Blocked
Sorry! This site is not available in your country.